spot_img

দিল্লি থেকে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী

অবশ্যই পরুন

ভারতের নতুন সরকারের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির শপথ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ শেষে নয়াদিল্লি থেকে ঢাকায় ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সোমবার সন্ধ্যা সোয়া ৭টার দিকে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী বিমানটি অবতরণ করে।

বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে স্বাগত জানান সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, বিমান ও পর্যটনমন্ত্রী ফারুক খানসহ সরকারের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা।

এর আগে সফরসঙ্গীদের নিয়ে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি বিশেষ ফ্লাইটে স্থানীয় সময় বিকল ৪টা ৪৫ মিনিটে নয়াদিল্লির ভিভিআইপি বিমানবন্দর পালাম এয়ার ফোর্স স্টেশন থেকে ঢাকার উদ্দেশে রওনা দেন প্রধানমন্ত্রী।

ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের সচিব (পূর্ব) জয়দীপ মজুমদার, বাংলাদেশে ভারতীয় হাইকমিশনার প্রণয় ভার্মা এবং ভারতে বাংলাদেশের হাইকমিশনার মো. মুস্তাফিজুর রহমান বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে বিদায় জানান।

ভারতের টানা তৃতীয়বারের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন নরেন্দ্র মোদি ও তার মন্ত্রিসভার সদস্যরা। রবিববার (৯ জুন) বিকালে রাষ্ট্রপতি ভবনে শেখ হাসিনা ও নরেন্দ্র মোদি একান্তে বৈঠক করেন। বৈঠকে দুই নেতা বিদ্যমান দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ককে আগামী দিনগুলোতে আরও দৃঢ় করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

সংক্ষিপ্ত বৈঠকে দুই নেতা একে অপরের খোঁজখবর নেন। এরপর শেখ হাসিনাকে সঙ্গে নিয়ে নরেন্দ্র মোদি রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মুর নৈশভোজে যোগ দেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার মেয়ে সায়মা ওয়াজেদকে নিয়ে রাষ্ট্রপতি ভবনে শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে যোগ দেন। শ্রীলঙ্কা, মালদ্বীপ, ভুটান, নেপাল, মরিশাস ও শেসেলসের শীর্ষ নেতারাও মোদির শপথ অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন। অনুষ্ঠানে ৮ হাজারেরও বেশি অতিথি অংশ নেন।

সর্বশেষ সংবাদ

ইসরায়েল ও হামাস উভয়েই যুদ্ধাপরাধ করেছে: জাতিসংঘ

গাজায় ইসরায়েল-হামাস যুদ্ধের শুরুর দিকে উভয় পক্ষই যুদ্ধাপরাধ করেছে বলে জাতিসংঘের এক অনুসন্ধানে উঠে এসেছে। পাশাপাশি, গাজায় ইসরায়েলিদের নির্বিচারে...

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ