spot_img

অলিম্পিকে মেসি-ডি মারিয়াকে চান কোচ মাচেরানো

অবশ্যই পরুন

সমীকরণ ছিল প্যারিস অলিম্পিকের টিকিট পেতে হলে ব্রাজিলের বিপক্ষে জিততেই হবে আর্জেন্টিনার। অলিখিত ফাইনালে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিলকে কাঁদিয়ে অলিম্পিকের মূলপর্ব নিশ্চিত করেছে আকাশি-সাদা জার্সিধারীরা। অলিম্পিক নিশ্চিত হওয়ার সাথে সাথেই ভক্তদের মনে নাড়া দিয়েছে পুরানো প্রশ্ন। প্যারিসে খেলবেন কি লিওনেল মেসি?

তবে মেসির জন্য সবসময় দরজা খোলা এমনটিই জানিয়ে দিয়েছেন, আর্জেন্টিনা অনূর্ধ্ব-২৩ দলের কোচ হ্যাভিয়ের মাচেরানো। বাছাইপর্ব শুরু হওয়ার আগেই প্যারিস অলিম্পিকে লিওনেল মেসি ও ডি মারিয়াকে পাওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন তিনি। তবে অলিম্পিকের ১০ দিন আগে শেষ হবে এবারের কোপা আমেরিকার আসর। সেজন্য সিদ্ধান্তটা তাদের উপরই ছেড়ে দিয়েছেন মেসির-ডি মারিয়াদের সাবেক এই সতীর্থ।

অলিম্পিকে অনূর্ধ্ব-২৩ দল থাকলেও একাদশে সিনিয়র তিনজন খেলোয়াড়কে অন্তর্ভুক্ত করতে পারে প্রতিটি দল। তিনজনের সেই কোটাতে কোচের চাওয়া মেসি ও ডি মারিয়াকে।

মাচেরানো বলেন, মেসি ও ডি মারিয়ার সঙ্গে আমার সম্পর্ক দারুণ। কোচ হিসেবে তাদের অবশ্যই দলে নিতে চাই। তবে খেলোয়াড় হিসেবে দুজনের অন্যান্য দায়বদ্ধতার জায়গা আছে। দিনশেষে এটি তাদের ওপরই নির্ভর করবে।

২০০৮ সালে বেইজিং অলিম্পিকে মেসি-ডি মারিয়ার হাত ধরেই অলিম্পিকে স্বর্ণ জিতেছিল আলবিসেলেস্তারা। কাতার বিশ্বকাপ জয়েও ছিল এই জুটির অবদান। তাইতো দুই মাস্টারমাইন্ডকে দলে চান মাচেরানো।

তিনি বলেন, দু‘জন বিশ্বচ্যাম্পিয়নকে দলে পাওয়া গর্বের বিষয় হবে। এমন খেলোয়াড় আছে, যারা কিছু বিষয় নির্ধারণ করে দিতে পারে। তারাই তেমন খেলোয়াড়। মেসি ও ডি মারিয়াকে দলে পাওয়া হবে সম্মানের ব্যাপার।

উল্লেখ্য, আগামী জুলাইয়ে আগামী ২০ জুন কোপা আমেরিকা পর্দা উঠবে। আর ফাইনাল মাঠে গড়াবে জুলাইয়ের ১৪ তারিখে। আসরে আর্জেন্টিনা দলের নেতৃত্ব দেবেন মেসি। খেলার কথা রয়েছে ডি মারিয়ারও।

সর্বশেষ সংবাদ

এবার জুতার ব্যবসায় নাম লেখালেন সাকিব

ঘরের মাঠে বাংলাদেশ দল যখন শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজ নিয়ে ব্যস্ত, তখন জাতীয় দলের তারকা ক্রিকেটার ও সংসদ সদস্য সাকিব...

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ