spot_img

পান্তা ভাতের যত উপকারিতা

অবশ্যই পরুন

বাঙালির অন্যতম এক জনপ্রিয় খাবার হচ্ছে পান্তা ভাত। প্রতিবছর পহেলা বৈশাখে খাবারের তালিকার শীর্ষে থাকে এই খাবারটি। এটিকে বাঙালির ঐতিহ্যের একটি অংশও বলা হয়। পান্তা ভাত, সঙ্গে পেঁয়াজ কাঁচা-মরিচ। কেউ তো আবার শখের বশে এই খাবারের সঙ্গে যোগ করেন মুখরোচক ভর্তা ও ডিম ভাজি।

জানেন কি, মজাদার এই পান্তা ভাত যদি নির্দিষ্ট সময়ের বেশি পানিতে ভিজিয়ে রাখা হয় তবে তা হতে পারে ক্ষতিকর। আবার নিয়ম মেনে তৈরি করলে এই পানি-ভাতেও মিলবে উপকার।

সাধারণত আগের দিন রাতের বেঁচে যাওয়া ভাতে পানি দিয়ে পান্তা ভাত তৈরি করা হয়। সাধারণভাবে রান্না করা ভাতকে ১০ থেকে ১২ ঘণ্টার জন্য রেখে দিলে গাজনকারী ব্যাকটেরিয়া সেখানে ল্যাকটিক এসিড তৈরি করে। ফলে পান্তা ভাতের অম্লত্ব বেড়ে যায়। তখন পচনকারী ও অন্যান্য ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়া ও ছত্রাক ভাত নষ্ট করতে পারে না।

১০০ মিলিগ্রাম সাধারণ ভাতে আয়রনের পরিমাণ থাকে ৩.৫ মিলিগ্রাম। কিন্তু ১২ ঘণ্টা ভিজিয়ে তৈরি করা পান্তা ভাতে এর পরিমাণ বেড়ে গিয়ে হয় ৭৩.৯ মিলিগ্রাম। একইভাবে ক্যালসিয়ামের পরিমাণও অনেক বেড়ে যায়। ১০০ মিলিগ্রাম সাধারণ ভাতে যেখানে ক্যালসিয়াম থাকে ২১ মিলিগ্রাম, সেখানে পান্তা ভাতে এর পরিমাণ দাঁড়ায় ৮৫০ মিলিগ্রাম।

সর্বশেষ সংবাদ

সন্ধ্যায় যেসব আমল করলে ভালো কাটবে সারারাত

প্রতিটি সময়েরই আমল রয়েছে। কিন্তু সব আমল জানা নেই আমাদের। তবে কুরআন-হাদিসে উল্লেখ রয়েছে আমলগুলো। মহান আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের...

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ