spot_img

ক্ষমতা থাকলে সবাইকে বরখাস্ত করতেন শোয়েব

অবশ্যই পরুন

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম টি-টুয়েন্টিতে রেকর্ড স্কোর গড়ে জয় পেয়েছিল পাকিস্তান। দ্বিতীয় টি-টুয়েন্টিতে এসে উল্টোরথে বাবর আজমের দল। সেই পরাজয়ই হরো সঙ্গী। পাকিস্তানের পরাজয় দেখে রেগে আগুন দেশটির সাবেক স্পিডস্টার শোয়েব আখতার।

রেগেমেগে সঙ্গে এটাও জানালেন যে, কী কারণে পরাজয় পাকিস্তানের ক্রিকেটারদের। সেই কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে সোজা বাবর আজমদের দিকে আঙুল তুলে দিলেন আখতার। বললেন, তার হাতে যদি ক্ষমতা থাকতো তাহলে ক্রিকেটার থেকে শুরু করে কর্মকর্তা-সবাইকে দল থেকে বরখাস্ত করতেন।

তিন ম্যাচের ওয়ান ডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হওয়ার পর ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে নিজেদের ইতিহাসে সেরা, ২৩২ রানের বিশাল স্কোর গড়েছিল পাকিস্তান। সেই স্কোরে ভর করে শেষ পর্যন্ত জয়ে পেয়েছিল ৩১ রানে।

কিন্তু সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচে আবারও মুখ থুবড়ে পড়েন বাবর আজমরা। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ৪৫ রানের বড় ব্যবধানে হারলেন তারা। ইংল্যান্ডের করা ২০০ রানের জবাবে পাকিস্তান থেমে যায় ১৫৫ রানে।

কেন হারলো সেদিন পাকিস্তান? কারণ খুঁজে বের করেছেন শোয়েব আখতার। ওইদিন টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন পাকিস্তান অধিনায়ক বাবর আজম। এ বিষয়টাই মানতে পারেননি আখতার।

তিনি ব্যাখ্যা করেন কেন লিডসের হেডিংলিতে প্রথম ফিল্ডিং করতে চাইলেন বাবর আজম। টুইটারে পোস্ট করা এক ভিডিও বার্তায় শোয়েব আখতার বলেন, ‘আমি বুঝতে পারছি না টস জিতে কেন ফিল্ডিং নেয়া হলো। যখন ইয়র্কশায়ারের এত রোদ উঠেছে তখন এই সিদ্ধান্তটা আমি বুঝতে পারছি না। এই সময় আপনি বোলিং করছেন কেন। ইংল্যান্ড ২৩২ করতে পারে। এমন সময় এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে যেই সময় বাটলার দলে ওপেন করছে।’

এরপরে শোয়েব রাগত স্বরে জানিয়ে দেন, তিনি ক্ষমতাপ্রাপ্ত হলে কী করতেন! শোয়েব বলেন, ‘আমি যদি পিসিবি’র চেয়ারম্যান হতাম তাহলে দলের ম্যানেজমেন্ট ও অধিনায়কের এই খারাপ সিদ্ধান্তের জন্য সবাইকে ছাঁটাই করে দিতাম।’

কথাগুলো যখন শোয়েব রেকর্ড করেছেন তখন দ্বিতীয় ম্যাচ মাত্র শুরু হয়েছিল। এরপরে সত্যি সত্যি ইংল্যান্ড ২০০ রান করে এবং ম্যাচে ৪৫ রানে হারতে হয় পাকিস্তানকে। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে থেকেও সমতায় ফিরতে হয়েছে পাকিস্তানকে।

সর্বশেষ সংবাদ

কোনো সাংবাদিক অহেতুক হয়রানির শিকার হবেন না : হাছান মাহমুদ

কোনো সাংবাদিক অহেতুক হয়রানির শিকার হবেন না বলে আশ্বাস দিয়েছেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর)...

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ