spot_img

পদ্মা সেতুতে রেলপথের স্ল্যাব বসানো সম্পন্ন

অবশ্যই পরুন

দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে দেশের অন্যতম মেগা প্রকল্প পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজ। তারই ধারাবাহিকতায় সেতুর সব স্প্যান বসিয়ে পদ্মার দুই পাড় এক করার ৬ মাসের মাথায় সম্পন্ন হলো পুরো সেতুতে রেলওয়ে স্ল্যাব বসানোর কাজ।

৬.১৫ কিলোমিটারের মূল সেতুতে বসানো হয়ে গেছে ২ হাজার ৯৫৯টি স্ল্যাব। রবিবার (২০ জুন) সেতুর মুন্সিগঞ্জের মাওয়া প্রান্তে ১২ ও ১৩ নং পিয়ারের স্প্যানে শেষ রেলওয়ে স্ল্যাব বসানোর মধ্য দিয়ে কাজ সমাপ্ত হয়। পদ্মা সেতুর উপ-সহকারী প্রকৌশলী মোঃ হুমায়ুন কবির এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

হুমায়ুন কবির জানান, সেতুর মোট ২ হাজার ৯৫৯টি রেলওয়ে স্ল্যাবের মধ্যে শনিবার (১৯জুন) পর্যন্ত বসানো হয় ২ হাজার ৯৫৮টি। রোববার (২০জুন) সর্বশেষ স্ল্যাবটি বসানোর মধ্য দিয়ে রেলওয়ে স্লাব বসানোর কাজ শেষ হলো।

সংশ্লিষ্ট প্রকৌশলী সুত্রে জানা যায়, ২৪ সেপ্টম্বর ২০১৮ সালে পদ্মা সেতুতে রেলওয়ে স্ল্যাব বসানোর কাজ শুরু হয়। সে হিসেবে ২ বছর ৮ মাস ২৬ দিনের মাথায় বসানো হলো সবগুলো রেলওয়ে স্ল্যাব। এখন সেতুর নিচ তলায় গ্যাস পাইপ লাইন স্থাপনের কাজ শুরু হবে। তা শেষ হলে রেল লিঙ্ক প্রকল্পের তত্ত্বাবধানেস শুরু হবে রেল লাইন বসানোর কাজ।

এদিকে পদ্মা সেতুতে রেলওয়ে স্ল্যাব বসানো পাশাপাশি রোডওয়ে স্ল্যাব বসানোর কাজও এগিয়ে চলছে বলে জানিয়েছে কতৃপক্ষ। সেতুর মোট ২ হাজার ৯১৭টি রোডওয়ে স্ল্যাবের মধ্যে বসানো হয়েছে ২ হাজার ৬৮৯টি। বাকি আছে আর ২২৮টি স্ল্যাব।

প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজ শুরু হয়। ২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর ৩৭ ও ৩৮ নম্বর খুঁটিতে প্রথম স্প্যান বসানোর মধ্য দিয়ে দৃশ্যমান হয় পদ্মা সেতু। এরপর একে একে ৪২টি পিলারে ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের ৪১টি স্প্যান বসিয়ে ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ পদ্মা সেতু পুরোপুরি দৃশ্যমান হয়েছে ২০২০ সালের ১০ ডিসেম্বর। একই সাথে সেখানে চলছে রোডওয়ে, রেলওয়ে স্ল্যাব বসানোসহ অন্যান্য কাজ।

সর্বশেষ সংবাদ

মৃত্যুর দুয়ার থেকে ফিরে এসেছি: টুম্পা

মৃত্যুকে খুব কাছে থেকে দেখে এসেছেন জাতীয় দলের শুটার উম্মে জাকিয়া সুলতানা টুম্পা। করোনা আক্রান্ত হয়ে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন ছিলেন...

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ