spot_img

ঈমানদার ও নেক আমলকারীদের জন্য নিয়ামাতের সুসংবাদ

অবশ্যই পরুন

মহাগ্রন্থ আল কুরআনে বিশ্বে এমন কিছু সৃষ্টি হয়নি যে সেটা নেই। সকল সমস্যার সমাধান এই মহাগ্রন্থ আল কুরআন। পবিত্র ‍কুরআনুল কারিমে মুমনদের জন্য চিরকালীন সুখের ব্যবস্থা আর কাফিরদের জন্য জাহান্নামের ভয়াবহ আগুনের বর্ণনা দেয়া হয়েছে। আলোচ্য আয়াত ঈমানদারদের জন্য সুসংবাদ দিয়ে আল্লাহ বলেন-

وَبَشِّرِ الَّذِين آمَنُواْ وَعَمِلُواْ الصَّالِحَاتِ أَنَّ لَهُمْ جَنَّاتٍ تَجْرِي مِن تَحْتِهَا الأَنْهَارُ كُلَّمَا رُزِقُواْ مِنْهَا مِن ثَمَرَةٍ رِّزْقاً قَالُواْ هَـذَا الَّذِي رُزِقْنَا مِن قَبْلُ وَأُتُواْ بِهِ مُتَشَابِهاً وَلَهُمْ فِيهَا أَزْوَاجٌ مُّطَهَّرَةٌ وَهُمْ فِيهَا خَالِدُونَ

আর (হে রাসুল!) যারা ঈমান এনেছে এবং সৎ কাজসমূহ করেছে, আপনি তাদেরকে এমন বেহেশতের সুসংবাদ দিন, যার পাদদেশে নহরসমূহ প্রবাহমান থাকবে। যখনই তারা খাবার হিসেবে কোনো ফল প্রাপ্ত হবে, তখনই তারা বলবে, এতো অবিকল সে ফলই যা আমরা ইতিপূর্বেও লাভ করেছিলাম। বস্তুতঃ তাদেরকে একই প্রকৃতির ফল প্রদান করা হবে। এবং সেখানে তাদের জন্য শুদ্ধচারিনী রমণীকূল থাকবে। আর সেখানে তারা অনন্তকাল অবস্থান করবে। (সূরা বাক্বারা: আয়াত ২৫)

অত্র আয়াতে দুই শ্রেণীর লোকের পুরস্কার ঘোষণা করা হয়েছে। ১. ঈমানদার এবং ২. সৎকাজ সম্পাদনকারী ব্যক্তি। নেক আমল এবং ঈমান একটা আরেকটার অবিচ্ছেদ্য অংশ। ঈমান ব্যতিত নেক আমল তথা দুনিয়ার কোন ভালো কাজই গ্রহণযোগ্য হবে না। সুতরাং আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের উদ্দেশ্যে ঈমানের সহিত সুন্নাত তরিকায় নেক আমল করলে তা গ্রহণযোগ্য হবে। অন্যথায় প্রত্যাখাত হবে।

ঈমানদার ও নেক আমলকারীর জন্য সুসংবাদ হচ্ছে-

১. তাঁরা বেহেশতে থাকবে, যার তলদেশ দিয়ে নহর প্রবাহিত;
২. সেখানে তারা ফলমূলপ্রাপ্ত হবে। এ ফল দেখতে এবং আকার দুনিয়ার ফলের মতোই হবে। কিন্ত স্বাদের বেলায় দুনিয়ার ফলের কোনো তুলনাই হবে না। হাদিসে এসেছে, ‘এমন নিয়ামত- যা কোনো চোখ দেখেনি, কোনো কান শোনেনি, কোনো মানুষের অন্তরে তার সঠিক ধারণা উদয় হয়নি। (বুখারি)
৩. তাঁদের জন্য থাকবে রক্তস্রাবমুক্ত, নিফাসমুক্ত এবং ঘৃণিত ও অপবিত্র জিনিস হতে মুক্ত পবিত্র রমণীগণ।
৪. তাঁরা চিরকাল জান্নাতের বসবাস করবে- হাদিসে এসেছে- ‘জান্নাতিরা জান্নাতে আর জাহান্নামিরা জাহান্নামে চলে যাওয়ার পর একজন ফেরেশতা ঘোষণা দেবেন, ‘হে জাহান্নামবাসীগণ! আর মৃত্যু নেই। আর হে জান্নাতবাসীগণ! আর মৃত্যু নেই। যে দল যে অবস্থায় আছে, সব সময় ঐ অবস্থায়ই থাকবে। (বুখারি ও মুসলিম)

সুতরাং আল্লাহ তাআলা সমগ্র মুসলিম উম্মাহকে ঈমানের সঙ্গে সঙ্গে নেক আমল করে জান্নাত লাভের তাওফিক দান করুন। আমিন।

সর্বশেষ সংবাদ

রাতের আধারে পোল্যান্ডের করোনা টিকাদান কেন্দ্রে সন্ত্রাসী হামলা

রাতের আধারে পোল্যান্ডের একটি করোনা টিকাদান কেন্দ্রে অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে। সোমবার (২ তারিখ) মধ্য রাতে জামোস্ক শহরের টিকাকেন্দ্রে পেট্রোল...

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ