ভুটানে আকস্মিক বন্যায় নিহত ১০

0
56

গত তিনদিন ধরে নেপাল ও ভুটানে মুষলধারে বৃষ্টি হচ্ছে। ভারি বর্ষণের ফলে বুধবার (১৬ জুন) ভুটানে আকস্মিক বন্যা হয়েছে। এতে প্রত্যন্ত অঞ্চলের একটি পাহাড়ি ক্যাম্পের ১০ জন নিহত ও পাঁচজন আহত হয়। এছাড়া নেপালে বন্যায় সাতজন নিখোঁজ রয়েছে। খবর রয়টার্সের।

ভুটানে গ্রামবাসীরা কর্ডেসেপ নামক একটি ফাঙ্গাস সংগ্রহ করছিল। ঘুমিয়ে থাকার সময় মধ্যরাতে হঠাৎ বন্যার পানি সেখানে চলে আসে। তাদের ক্যাম্পটি ছিল রাজধানী থিম্পু থেকে প্রায় ৬০ কিলোমিটার দূরে লায়া শহরতলির কাছাকাছি। বন্যার পানিতে সেটি পুরোপুরি ভেসে গেছে।

প্রধানমন্ত্রী লোটে শেরিং এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘আমরা এই মর্মান্তিক ঘটনার কথা জেনেছি যে, কর্ডেসেপ সংগ্রহকারীদের একটি দলকে (বন্যা) আঘাত করেছে। আজ আমাদের হৃদয় লায়াবাসীদের সঙ্গে রয়েছে।’

আহতদের উদ্ধারে দুটি হেলিকপ্টার মোতায়েন করা হয়েছে। এছাড়া সামরিক বাহিনীর উদ্ধারকারীরা ঘটনাস্থলের দিকে যাত্রা করেছেন। কাছাকাছি রাস্তা থেকে প্রায় ১১ ঘণ্টা পেয়ে হেঁটে সেখানে পৌঁছাতে হবে।

ভুটান ও নেপালের গ্রামবাসীরা প্রতি বছর কর্ডিসেপ সংগ্রহ করতে পাহাড়ি অঞ্চলে যায়। এই ফাঙ্গাসে ওষধি গুণাগুণ রয়েছে বলে বিশ্বাস করা হয়।

ভুটানি সংবাদপত্রে বলা হয়েছে, গ্রামবাসীদের ওই ক্যাম্পটি দুটি পাহাড়ের মাঝখানে একটি ছড়ার পাশে স্থাপন করা হয়েছিল। ধারণা করা হচ্ছে, ছড়ায় যখন বন্যার পানি আসে তখন ক্যাম্পটি পানিতে ভেসে গেছে।

এদিকে নেপালের সিন্ধুপালচোক জেলায় রাতভর ভারি বর্ষণের ফলে সৃষ্ট আকস্মিক বন্যায় সাতজন নিখোঁজ হয়। দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা দিল কুমার তামাং এ তথ্য জানিয়েছেন। বন্যায় মেলামচি নদীর পানি এসে বেশ কিছু ঘরবাড়ি প্লাবিত করেছে।

তামাং বলেছেন, ‘আমরা ক্ষয়ক্ষতি সম্পর্কে বিস্তারিত জানার চেষ্টা করছি।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here