spot_img

লকডাউনে সারাদিন ঘুমিয়ে নিজের ক্ষতি করছেন

অবশ্যই পরুন

শরীরের সুস্থতার জন্য নির্দিষ্ট পরিমান ঘুমের প্রয়োজন। তারচেয়ে ঘুম কম হলে যেমন শরীর খারাপ হতে পারে, তেমনই অতিরিক্ত ঘুমও আমাদের শারীরিক অসুস্থতার কারণ হতে পারে।

দিনের মধ্যে ১০-১২ ঘণ্টা ঘুমিয়ে কাটালে তার খারাপ প্রভাব আমাদের শরীরে পড়ে। তাই হাতে কাজ না থাকলেও অকারণে পড়ে পড়ে ঘুমোবেন না। অনেকেই এই লকডাউনে এমন কাজটি করছেন। কিন্তু লকডাউন শেষ হতে হতে আপনি অসুস্থ হয়ে পড়বেন।

সম্প্রতি এক গবেষণায় দেখা গেছে, যারা ৯ ঘণ্টা ও তার বেশি সময় ঘুমায়, তাদের মধ্যে বিষণ্ণতার ঝুঁকি বেড়ে যায়। দীর্ঘ লকডাউনে সারাদিন অনেকেরই তেমন কোনও কাজ নেই। অনেকেই অনলাইনের বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সময় দিয়েও সময় কাটছে না।  কত আর সিনেমা দেখা যায়? ফলে এখন দিনের অনেকটা সময়ই আমাদের ঘুমিয়ে কাটছে। সব সময়ই বলা হয়, পর্যাপ্ত ঘুমাতে হবে। কিন্তু এই পর্যাপ্ত মানে একজন মানুষের সুস্থ থাকার জন্য সাত থেকে আট ঘণ্টা ঘুমই যথেষ্ট।

অতিরিক্ত ঘুম শরীরের জন্য কী কী ক্ষতি করতে পারে জেনেনিন বিশেষজ্ঞরা কী বলেন –
* সম্প্রতি এক গবেষণায় দেখা গেছে, যারা ৯ ঘণ্টা ও তার বেশি সময় ঘুমান, তাদের মধ্যে বিষণ্ণতার ঝুঁকি বেড়ে যায়।

* বেশি সময়ের ঘুম মস্তিষ্কের কাজ করার ক্ষমতা হ্রাস করে।

* কানাডার কুইবেক বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গবেষণায় বলা হয়, রাতে আট ঘণ্টার বেশি ঘুমের কারণে রক্তের গ্লুকোজ নিয়ন্ত্রণের ক্ষমতা হারায় দেহ। এতে টাইপ ২ ডায়াবেটিসের শঙ্কা বেড়ে যায়।

* আট ঘণ্টার বেশি সময় নিয়মিত ঘুমোলে হৃদযন্ত্রের সমস্যা দেখা দিতে পারে।

* ওজন বাড়ার অন্যতম কারণ অতিরিক্ত ঘুম।

সর্বশেষ সংবাদ

সেই রাতে চিত্রনায়িকা পরিমনির ঘটনা নিয়ে মুখ খুললেন জিমি

আজ সোমবার সকালে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগে উত্তরা ক্লাবের সাবেক সভাপতি নাসির উদ্দিন মাহমুদ ও অমিসহ ছয়জনকে আসামি করে...

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ