spot_img

খাবারে রুচি ফেরাতে কাঁচা-আমের টক ডাল

অবশ্যই পরুন

গ্রীষ্মের তীব্রতায় জনজীবন অতিষ্ঠ হয়ে পড়লেও এই সময়ে দেখা মেলে বেশ কিছু হৃদয় প্রশান্তকারী রসালো ফলের। যার মধ্যে অন্যতম ফলের রাজা আম। আর এখন বাজারে সবচেয়ে সহজলভ্য কাঁচা আম।

এতে আছে ভিটামিন বি-১ ও ভিটামিন-২। এছাড়াও আছে ক্যালসিয়াম, আয়রন, পটাসিয়াম। এছাড়া কাঁচা আমে বিটা ক্যারোটিন থাকায় হৃৎপিণ্ডের বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধে সাহায্য করে।

সকাল কিংবা দুপুরের খাবারে ভাতের সঙ্গে আমের টক ডাল হতে পারে এই সময়ের অন্যতম মেন্যু। অনেকে মনে করেন, আম দিয়ে ডাল এর পুষ্টিগুণ নষ্ট হয়ে যায়। কিন্তু এই ধারণা সম্পূর্ণ ভুল।

মসুর ডাল দিয়ে আমের টক ডাল রান্না করলে পুষ্টিগুণ অটুট থাকে। এই টক ডাল হজমের জন্য যেমন সহায়ক তেমনি এটি সহজপাচ্য। টক ডাল গরমের ক্লান্তি কাটাতেও সাহায্য করে। এছাড়াও গরমের সময় অরুচি কাটাতেও সহায়ক টক ডাল।

কাঁচা আম শরীর ঠান্ডা রাখতে সহায়তা করে। মসুর ডাল প্রোটিনের অন্যতম প্রধান উৎস। তাই একে মাংসের বিকল্প হিসেবেও ধরা হয়। মসুর ডাল শুধু সুস্বাদুই নয় এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে পুষ্টিগুণ। খনিজ পদার্থ, আঁশ, খাদ্যশক্তি, আমিষ, ক্যালসিয়াম, লৌহ, ক্যারোটিন, ভিটামিন বি-২ ও শর্করা ইত্যাদি। অন্যদিকে, কাঁচা আম ভিটামিন সমৃদ্ধ ও মিনারেলে ভরপুর। এতে আছে ক্যারোটিন ও ভিটামিন, যা চোখ ভালো রাখার জন্য দরকারি।

সর্বশেষ সংবাদ

বাজেট অধিবেশন শুরু ২ জুন

আগামী ২ জুন থেকে শুরু হবে জাতীয় সংসদের বাজেট অধিবেশন। মঙ্গলবার (১১ মে) জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের গণসংযোগ শাখার পরিচালক...

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ