spot_img

আইআরজিসি ও সেনাবাহিনীর ঐক্য শত্রুদের স্বপ্ন ভেঙ্গে দিয়েছে: সালামি

অবশ্যই পরুন

ইরানের ইসলামি বিপ্লব গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসির কমান্ডার-ইন-চিফ বলেছেন, আইআরজিসি ও সেনাবাহিনীর ঐক্যে শত্রুদের স্বপ্ন ভেঙ্গে চুরমার হয়ে গেছে। মেজর জেনারেল হোসেইন সালামি আজ ইরানের ‘সেনাবাহিনী দিবস’ উপলক্ষে দেওয়া এক শুভেচ্ছা বাণীতে ওই মন্তব্য করেন।

সেনাবাহিনীর সর্বাধিনায়ক আব্দুর রহিম মুসাভিকে দেওয়া অভিনন্দন বার্তায় জেনারেল সালামি আরও বলেন:  তৎকালীন ২৯ ফারভারদিন তথা ১ এপ্রিল হলো ‘ইয়াওমুল্লাহ’। এই দিন ইরানি জাতি ও সরকার ব্যবস্থার জন্য একটি আদর্শ দিন এবং বিপ্লবী প্রতিরক্ষা শক্তির উত্থানের দিন। এইদিনে সেনাবাহিনী ও সিপাহীদের ঐক্যের সুবাদে শত্রুদের স্বপ্ন ধূলিস্মাৎ হয়ে গিয়েছিল বলে তিনি মন্তব্য করেন।

সেনাবাহিনী দিবস ইরানের বিগত ৪৩ বছরের স্বর্ণোজ্জ্বল ও গৌরবময় ইতিহাসের কথা স্মরণ করিয়ে দেয়। যে ইতিহাসের স্বর্ণালি পাতায় খচিত রয়েছে প্রিয় সেনাবাহিনীর বীরত্বগাঁথা। কুর্দিস্তানে ভাড়াটিয়া বলদর্পী সেনাদের বিরুদ্ধে বিপ্লবী প্রতিরক্ষা বাহিনীর ঐতিহাসিক বিজয়ের কথা আজও অম্লান বলে জেনারেল সালামি উল্লেখ করেন। পরবর্তীকালে ইরানের ওপর ইরাকের চাপিয়ে দেওয়া ৮ বছরের যুদ্ধেও সাদ্দামের নৃশংস পাশবিক বাহিনীর বিরুদ্ধে ইরানি সেনাবাহিনীর প্রতিরক্ষা যুদ্ধ যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ। বিশেষ করে স্বদেশের বিপথগামী ও শপথ করা নিকৃষ্ট শত্রুদের জন্য শিক্ষণীয় বলে মন্তব্য করেন আইআরজিসি’র প্রধান।

১৯৭৯ সালের ১৭ এপ্রিল (ফার্সি ২৯ ফারভারদিন) ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের রূপকার ইমাম খোমেনি (র) ঐতিহাসিক এক বার্তা দেন। তাঁর ওই বার্তার সুবাদে ইরানি সেনাবাহিনী নবজন্ম লাভ করেছিল। বার্তায় তিনি ১৭ এপ্রিলকে ইরানের সেনাবাহিনী দিবস হিসেবে ঘোষণা করেছিলেন।

সর্বশেষ সংবাদ

গাজায় হামলা বন্ধে ইসরায়েলকে চীন-রাশিয়ার আহ্বান

অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় হামলা অব্যাহত রেখেছে ইসরায়েল। এমন অবস্থায় অবিলম্বে ফিলিস্তিনে সব ধরনের দমনমূলক কার্যক্রম থেকে সরে আসতে আহ্বান...

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ