spot_img

‘করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন বীমা কমিশন এজেন্টরা’

অবশ্যই পরুন

এস এম নুরুজ্জামান। জেনিথ ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ও ব্যবস্থাপনা পরিচালকের (এমডি) দায়িত্ব পালন করছেন। দীর্ঘদিন বীমা খাতে কর্মরত এই কর্মকর্তা চলমান করোনা পরিস্থিতি ও লকডাউনে চিন্তিত ফিনান্সিয়াল অ্যাসোসিয়েট বা আর্থিক সহযোগীদের নিয়ে। তিনি মনে করেন, এ সময়ে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন যারা মূলত কমিশনে কাজ করেন। এ জন্য তাদের সরকারি প্রণোদনা দিতে হবে।

শনিবার (১১ এপ্রিল)  তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, এই সময়টা বেশ খারাপ। আমরা কমিশন এজেন্টদের জন্য সরকারের কাছে প্রণোদনা চাই। একই সঙ্গে কোম্পানিগুলো এই সময়ে এজেন্টদের অগ্রিম টাকা দিয়ে চালিয়ে নিতে পারে। পরে ব্যবসা হলে কেটে নেবে। সরকার প্রণোদনা না দিলেও ঋণ দিতে পারে।

লকডাউনের কারণে কমিশন এজেন্টরা নতুন গ্রাহক তৈরি বা প্রিমিয়াম সংগ্রহ করতে না পারায় তারা ক্ষতির মুখে পড়েছেন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

কমপ্লিট লকডাউন হলে বীমা শিল্প অনেক বড় ক্ষতির মুখে পড়বে বলে মনে করেন এই কর্মকর্তা। বলেন, সরকারের এক সপ্তাহের বিধিনিষেধের মধ্যে আমরা ১০টা থেকে সাড়ে ৪টা পর্যন্ত অফিস করেছি। এখন কমপ্লিট লকডাউন হলে অবশ্যই বড় ক্ষতি হবে।

সর্বশেষ সংবাদ

‘যুক্তরাষ্ট্র আমাদের পাশে রয়েছে’

জার্মানির চ্যান্সেলর এঙ্গেলা মার্কেল বুধবার, ইউরোপের সঙ্গে সম্পর্কের প্রতি গুরুত্ব আরোপ করেছেন। তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র সব সময়েই ইউরোপের সবচাইতে...

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ