spot_img

করোনা সচেতনতায় বিএমপির বর্ণাঢ্য মোটর শোভাযাত্রা

অবশ্যই পরুন

রোনাভাইরাস মোকাবেলায় জনসচেতনতামূলক র‌্যালি ও মোটর শোভাযাত্রা করেছে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ (বিএমপি)। ‘নিয়মিত মাস্ক পরি, করোনা মুক্ত দেশ গড়ি’ এ স্লোগান নিয়ে সোমবার (৫ এপ্রিল) সকাল ১১টায় নগরীর জিলা স্কুল মোড়ে এ র‌্যালির উদ্বোধন করেন বিএমপি কমিশনার মো. শাহাবুদ্দিন খান- বিপিএম (বার)।

র‌্যালি পূর্বক উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিএমপি কমিশনার বলেন, ‘বরিশালসহ দেশব্যাপী করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হয়েছে। প্রতিদিন আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েই চলেছে। এ কারণে সরকার জনগণকে সুরক্ষায় নিয়মিত মাস্ক ব্যবহারের পাশাপাশি সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলার জন্য বিধি নিষেধ আরোপ করেছে।

তিনি বলেন, ‘আজ থেকে দেশব্যাপি লকডাউন (অবরোধ) দেয়া হয়েছে। আমরা বিএমপি সদস্যরা জনগণকে সাথে নিয়ে করোনা প্রতিরোধের জন্য কাজ করছি। ইতিমধ্যে করোনা প্রতিরোধের জন্য ১১টি বিষয় নিয়ে মাঠে নেমেছি। প্রতিদিন সন্ধ্যা ৬টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত বিনা কারণে কেউ রাস্তায় ঘোরা-ফেরা করবেন না। আবার সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে নিত্য প্রয়োজনীয় দোকান খোলা রাখা যাবে।

বিএমপি কমিশনার আরও বলেন, ‘আপনারা হাট-বাজারে মাস্ক ব্যবহার করাসহ সমাজিক দূরত্ব বজায় রেখে কাজ করবেন। পাশাপাশি গণজমায়েত এড়িয়ে চলতে হবে। আমরা নিজেরা একটু সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এবং সচেতন হয়ে চলাচল করতে পারি তাহলেই করোনা দ্রুত প্রতিরোধ করতে সক্ষম হবো। নিজেকে সুস্থ রাখতে পারবো এবং অন্যকেও সুস্থ থাকতে সহযোগিতা করবো।

হুঁশিয়ারি দিয়ে বিএমপি কমিশনার বলেন, ‘আমরা আশা করছি আপনারা নিজে থেকেই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলবেন। অন্যথায় আমরা কঠোর হবো। আমরা মেট্রোপলিটন পুলিশ জেলা প্রশাসনকে সাথে নিয়ে স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনে বাধ্য করতে কঠোর আইন প্রয়োগ করতে বাধ্য হবো।

বরিশাল মেট্রোপলিন কোতয়ালী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নুরুল ইসলাম এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সচেতনতামূলক র‌্যালির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার প্রলয় চিসিম, অতিরিক্ত কমিশনার এনামুল হক, উপ-পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) জাকির হোসেন মজুমদার প্রমুখ।

এদিকে, ‘উদ্বোধনী আলোচনা পরবর্তী বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার শাহাবুদ্দিন খান এর নেতৃত্বে একটি প্রতীকি করোনা ভাইরাস নিয়ে জিলা স্কুল মোড় থেকে একটি র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি রাজাবাহাদুর সড়ক প্রদক্ষিণ করে। পরে নগরীতে বিশাল এক মোটর শোভাযাত্রা বের করা হয়। যা শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। এতে পুলিশের জিপ, পিকআপ এবং অর্ধশতাধিক মোটরসাইকেল নিয়ে অংশগ্রহণ করেন পুলিশ সদস্যরা।

সর্বশেষ সংবাদ

মিষ্টি নিয়ে পরাজিত প্রতিদ্বন্দ্বীর বাড়িতে গেলেন জুন মালিয়া!

পশ্চিমবঙ্গের বিজেপি তৃণমূল রাজনৈতিক রেষারেষি মধ্যেই বুধবার মেদিনীপুর কেন্দ্রে তার প্রতিদ্বন্দ্বী পরাজিত প্রার্থী শমিত দাসের বাড়িতে ফুল ও মিষ্টি...

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ