spot_img

করোনায় তিনগুণ বেড়েছে পুরুষত্বহীনতা

অবশ্যই পরুন

টানা এক বছরেরও বেশি সময় ধরে করোনাভাইরাস মহামারির সঙ্গে লড়ছে বিশ্ব। মানুষের দৈনন্দিন জীবনযাপন, সমাজ, রাজনীতি, অর্থনীতিসহ প্রায় সবক্ষেত্রে করোনার প্রভাব স্পষ্ট। এমনকি করোনা সংক্রমণের প্রভাব পড়ছে পুরুষদের প্রজনন ক্ষমতার ওপরও।

এক সমীক্ষা অনুযায়ী, করোনার কারণে পুরুষদের মধ্যে পুরুষত্বহীনতা বা নপুংসতা বৃদ্ধি পাচ্ছে। এছাড়া করোনার কারণে সেক্স হরমোন কমে যাচ্ছে। এর ফলেও পুরুষত্ব হারানোর আশংকা তৈরি হচ্ছে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইলের প্রতিবেদন বলছে, ১০০ জন করোনা সংক্রমিত পুরুষের ওপর সমীক্ষা চালিয়েছেন ইতালির রোম বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষজ্ঞরা। সমীক্ষায় অন্তর্ভুক্ত এসব পুরুষের গড় বয়স ৩৩ বছর।

সমীক্ষার ফলাফল বলছে, করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হওয়া পুরুষদের মধ্যে ২৮ শতাংশের ইরেকটাইল ডিসফাংশন বা পুরুষত্বহীনতা লক্ষ্য করা গেছে। এসব পুরুষ শারীরিক সম্পর্ক তৈরির ক্ষমতা হারাচ্ছেন। সাধারণভাবে এই সমস্যা ৯ শতাংশ পুরুষের থেকে থাকে। সে হিসেবে করোনায় পুরুষত্বহীনতা বেড়েছে ৩ গুণের বেশি।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, করোনায় আক্রান্ত হয়ে নারীদের তুলনায় পুরুষের মৃত্যু হয়েছে ১ দশমিক ৭ গুণ বেশি। মানব শরীরের শ্বেত রক্তকণিকা ক্ষতিগ্রস্ত করছে করোনাভাইরাস। যার কারণে শরীরে রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যাচ্ছে। ফলে পুরুষের জননাঙ্গের সমস্যাও বাড়ছে। এছাড়া করোনা প্রভাব ফেলছে অ্যাস্ট্রোজেন ও টেস্টোস্টেরন হরমোনেও।

তবে করোনার প্রভাব কি কেবল পুরুষের ওপরই পড়ছে? গবেষণা বলছে, কেবল পুরুষদের নয়, করোনার কারণে নারীদেরও কিছু কিছু সমস্যা দেখা দিচ্ছে। নারীদের অনেকের পিরিয়ড অনিয়মিত হয়ে পড়ছে; দেখা দিচ্ছে সময়ের আগে মেনোপজ হওয়ার আশঙ্কা।

সূত্র: ডেইলি মেইল

সর্বশেষ সংবাদ

‘যুক্তরাষ্ট্র আমাদের পাশে রয়েছে’

জার্মানির চ্যান্সেলর এঙ্গেলা মার্কেল বুধবার, ইউরোপের সঙ্গে সম্পর্কের প্রতি গুরুত্ব আরোপ করেছেন। তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র সব সময়েই ইউরোপের সবচাইতে...

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ