ম্যালকম এক্সের হত্যায় নতুন তদন্ত চায় পরিবার

অবশ্যই পড়ুন

নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে মাঝ সমুদ্রে ঝাঁপ রাহুল গান্ধীর!

বিধানসভা নির্বাচনের প্রচারকালে গতকাল বুধবার কেরালার কোল্লাম জেলায় নৌকায় করে মৎসজীবীদের সাথে সমুদ্রে ঘুরছিলেন রাহুল গান্ধী। সেইসময় তিনি হটাৎ...

টিকা নিয়েছেন সাড়ে ২৮ লাখের অধিক মানুষ

দেশে করোনাভাইরাসের টিকাদান কর্মসূচি শুরুর পর থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত করোনাভাইরাসের টিকা নিয়েছেন ২৮ লাখ ৫০ হাজার ৯৪০ জন। এর...

রান্নাঘর থেকে শাহরুখ কন্যার বার্তা

রান্না ঘরে কাজ করছেন বলিউড বাদশাহ শাহরুখ খানের মেয়ে সুহানা খান। সেখানকার বিভিন্ন জিনিসপত্রের সঙ্গে সুহানার ছবি ইনস্টাগ্রামে পোস্ট...

দেড় দিনেই শেষ পাঁচ দিনের টেস্ট

আহমেদাবাদ টেস্টের প্রথম ইনিংসই জানান দিচ্ছিল স্পিন বিষের নীল হচ্ছে উভয় দল। হলোও তাই। দুই দলের স্পিনারদের মায়াবী জাদুর...

স্কুল খোলার সিদ্ধান্ত শনিবার : শিক্ষামন্ত্রী

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, শনিবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিত্বে আন্তঃমন্ত্রণালয় কমিটির বৈঠক হবে, সেখানে আগামী ১ মার্চ থেকে...

যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক অধিকার আন্দোলন নেতা ম্যালকম এক্সের হত্যাকাণ্ডে নতুন তথ্যপ্রমাণ পাওয়ার কারণে পুনরায় তদন্ত শুরুর আহ্বান জানিয়েছে পরিবার।

শনিবার নিউ ইয়র্কে এক সংবাদ সম্মেলনে ম্যালকম এক্সের মেয়ে ইলিয়াসা শাবাজ বলেন, ‘ভয়াবহ এই মর্মান্তিক ঘটনার পেছনের সত্য প্রকাশকারী যেকোনো প্রমাণ পরিপূর্ণভাবে তদন্ত করা উচিত।’

এর আগে ১৯৬৫ সালে সংগঠিত এই হত্যাকাণ্ডে ঘটনাস্থলে থাকা সাবেক এক পুলিশ কর্মকর্তা মৃত্যুশয্যায় লেখা স্বীকারোক্তিমূলক পত্রে জানান, ম্যালকম এক্সের হত্যায় নিউ ইয়র্ক পুলিশ বিভাগ (এনওয়াইপিডি) ও গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআইয়ের চক্রান্ত ছিল।

রেমন্ড উড নামের ওই পুলিশ কর্মকর্তা তার স্বীকারোক্তিতে দাবি করেন, এনওয়াইপিডি ও এফবিআই হত্যাকাণ্ডের প্রমাণ গোপন করে। তার ওপর গোপন দায়িত্ব ছিল, ম্যানহাটানের অডবন বলরুমে ম্যালকম এক্সের নির্ধারিত বক্তৃতার অনুষ্ঠানে প্রবেশপথে যাতে কেউ নিরাপত্তা রক্ষায় না থাকে।

১৯৬৫ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি নিউ ইয়র্কের ম্যানহাটানে অডবন বলরুমে নির্ধারিত বক্তৃতার অনুষ্ঠানে ৩৯ বছর বয়সী ম্যালকম এক্সকে গুলি করে হত্যা করা হয়। হত্যাকাণ্ডের জন্য যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক কৃষ্ণাঙ্গবাদী সংগঠন ‘ন্যাশন অব ইসলামের’ তিন সদস্যকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়।

যুক্তরাষ্ট্রে কৃষ্ণাঙ্গ অধিকার আন্দোলনের নেতৃত্বস্থানীয় ব্যক্তিত্ব হিসেবে ম্যালকম এক্স পরিচিত। স্বাধীনতা, সাম্য ও ন্যায়বিচারের আন্দোলনের প্রতীক হিসেবে সারাবিশ্বেই তাকে স্মরণ করা হয়।

ম্যালকম এক্সের পরিবারের আহ্বানের জেরে এনওয়াইপিডি এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘কয়েক মাস আগে, ম্যানহাটান ডিস্ট্রিক্টের অ্যাটর্নি ম্যালকম এক্সের হত্যাকাণ্ডের তদন্ত ও বিচার প্রক্রিয়া মূল্যায়ন শুরু করেন, যার ফলে দুই জনকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়।’

এতে আরো বলা হয়, ‘এনওয়াইপিডি ডিস্ট্রিক্ট অ্যাটর্নির কাছে আয়ত্তাধীন সব তথ্য প্রমাণ সরবরাহ করেছে। যে কোনো উপায়েই এই মূল্যায়নে সহায়তা করতে বিভাগ অঙ্গীকারবদ্ধ থাকবে।’

সূত্র : আনাদোলু এজেন্সি

- Advertisement -
- Advertisement -

সর্বশেষ সংবাদ

নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে মাঝ সমুদ্রে ঝাঁপ রাহুল গান্ধীর!

বিধানসভা নির্বাচনের প্রচারকালে গতকাল বুধবার কেরালার কোল্লাম জেলায় নৌকায় করে মৎসজীবীদের সাথে সমুদ্রে ঘুরছিলেন রাহুল গান্ধী। সেইসময় তিনি হটাৎ...
- Advertisement -

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

- Advertisement -