আমরা বাংলাদেশেই যুদ্ধবিমান তৈরি করতে পারবো: প্রধানমন্ত্রী

অবশ্যই পড়ুন

নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে মাঝ সমুদ্রে ঝাঁপ রাহুল গান্ধীর!

বিধানসভা নির্বাচনের প্রচারকালে গতকাল বুধবার কেরালার কোল্লাম জেলায় নৌকায় করে মৎসজীবীদের সাথে সমুদ্রে ঘুরছিলেন রাহুল গান্ধী। সেইসময় তিনি হটাৎ...

টিকা নিয়েছেন সাড়ে ২৮ লাখের অধিক মানুষ

দেশে করোনাভাইরাসের টিকাদান কর্মসূচি শুরুর পর থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত করোনাভাইরাসের টিকা নিয়েছেন ২৮ লাখ ৫০ হাজার ৯৪০ জন। এর...

রান্নাঘর থেকে শাহরুখ কন্যার বার্তা

রান্না ঘরে কাজ করছেন বলিউড বাদশাহ শাহরুখ খানের মেয়ে সুহানা খান। সেখানকার বিভিন্ন জিনিসপত্রের সঙ্গে সুহানার ছবি ইনস্টাগ্রামে পোস্ট...

দেড় দিনেই শেষ পাঁচ দিনের টেস্ট

আহমেদাবাদ টেস্টের প্রথম ইনিংসই জানান দিচ্ছিল স্পিন বিষের নীল হচ্ছে উভয় দল। হলোও তাই। দুই দলের স্পিনারদের মায়াবী জাদুর...

স্কুল খোলার সিদ্ধান্ত শনিবার : শিক্ষামন্ত্রী

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, শনিবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিত্বে আন্তঃমন্ত্রণালয় কমিটির বৈঠক হবে, সেখানে আগামী ১ মার্চ থেকে...

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আমরা বাংলাদেশেই যুদ্ধবিমান তৈরি করতে পারবো। কাজেই এর ওপর গবেষণা করা ও আকাশসীমা রক্ষা নিজেরাই যেন করতে পারি সেভাবে প্রস্তুতি নিচ্ছি। দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব রক্ষা ও প্রতিরক্ষার ক্ষেত্রে আরও ১০ ধাপ এগিয়ে নিতে কাজ করছি। এক্ষেত্রেও সফল হবো বলে বিশ্বাস করি।

আজ মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) বিমান বাহিনীর ১১ স্কোয়াড্রন ও ২১ স্কোয়াড্রনকে জাতীয় পতাকা প্রদান অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হন প্রধানমন্ত্রী। এ সময় বিমান বাহিনী প্রধানসহ সরকারের পদস্থ কর্মকর্তা ও বিমান বাহিনীর শীর্ষ কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর একটা গৌরবময় ইতিহাস রয়েছে। জাতির পিতার ডাকে সাড়া দিয়ে সাধারণ মানুষের সঙ্গে কাঁধ মিলিয়ে মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেয় বিমান বাহিনী। পাকিস্তানের অসংখ্য লক্ষ্যবস্তুতে হামলা করেছে তারা। সীমিত শক্তি নিয়েও তারা যে সাহসিকতার পরিচয় দিয়েছে, জাতি চিরদিন স্মরণ রাখবে।

তিনি আরও বলেন, স্বাধীনতার পর জাতির পিতা স্বপ্ন দেখেছেন, সবদিক থেকে বাংলাদেশ সমৃদ্ধ হবে। সেই স্বপ্ন থেকেই সীমিত সম্পদ দিয়ে সশস্ত্র বাহিনী গড়ে তুলেছিলেন। বিশেষ করে আধুনিক বিমান গড়ে তুলেছিলেন তিনি। বাংলাদেশের প্রতিরক্ষা নীতিমালা-১৯৭৪ করে দিয়ে যান। সে আলোকে আমরা সশস্ত্র বাহিনীকে গড়ে তুলছি। দেশের প্রতিরক্ষা খাত আধুনিকায়ন ও কয়েক ধাপ এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার কাজ করছি। লালমনিরহাটে বঙ্গবন্ধু অ্যাভিয়েশন বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠাসহ নানা কাজ করে যাচ্ছি। আজ বাংলাদেশ বিমান বাহিনী দেশ ও বিদেশে সম্মানজনক অবস্থান তৈরি করেছে।

- Advertisement -
- Advertisement -

সর্বশেষ সংবাদ

নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে মাঝ সমুদ্রে ঝাঁপ রাহুল গান্ধীর!

বিধানসভা নির্বাচনের প্রচারকালে গতকাল বুধবার কেরালার কোল্লাম জেলায় নৌকায় করে মৎসজীবীদের সাথে সমুদ্রে ঘুরছিলেন রাহুল গান্ধী। সেইসময় তিনি হটাৎ...
- Advertisement -

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

- Advertisement -