বিশ্বরেকর্ডের পথে ‘শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধু’

অবশ্যই পড়ুন

করোনায় মৃত মুসলিমদের দ্বীপে দাফন ঘিরে শ্রীলঙ্কায় তুমুল বিতর্ক

করোনাভাইরাসে মৃত মুসলিমদের প্রত্যন্ত দ্বীপে দাফনে শ্রীলঙ্কার সরকারের নেওয়া পরিকল্পনার তুমুল সমালোচনা করেছেন দেশটির স্থানীয় এবং সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠীর সদস্যরা।...

মেয়রের গাড়িতে বাসের ধাক্কা, স্ত্রী-ছেলেসহ নিহত ৩

ফরিদপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় নগরকান্দা পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র নিমাই চন্দ্র সরকারের স্ত্রী ও ছেলেসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। এ সময় গুরুতর...

বর্জ্যের ট্যাংকিতে পড়ে প্রাণ গেল মা-ছেলেসহ ৩ জনের

ময়মনসিংহের ভালুকায় কারখানার বর্জ্যের ট্যাংকিতে পড়ে মা-ছেলেসহ তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার রাত ৮ টার দিকে তিনজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। পুলিশ...

মায়ের কোলে ফিরল বিক্রি হওয়া শিশু

নাটোরের বড়াইগ্রামে সুদী মহাজনের চাপে বিক্রি করা শিশুকে মায়ের কোলে ফিরিয়ে দিলেন জেলা প্রশাসক মো. শাহরিয়াজ। বুধবার (৩ মার্চ) বিকেলে...

আহমেদাবাদে ভারত-ইংল্যান্ড তৃতীয় টেস্ট নিয়ে এবার মুখ খুললেন ইনজামাম

আহমেদাবাদে অনুষ্ঠিত ভারত-ইংল্যান্ড তৃতীয় টেস্ট নিয়ে এবার মুখ খুললেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক ইনজামাম-উল হক। দুদিনের মধ্যে শেষ হয়েছে সেই...

‘শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধু’- বাংলার ধানে জাতির পিতার প্রতিচ্ছবি। তা দিয়ে বিশ্বরেকর্ড গড়ার জন্য ‘গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস’ কর্তৃপক্ষ নির্দেশিত পথে হাঁটছে এর সকল কার্যক্রম।

গেল ৪ ফেব্রুয়ারি শস্যরোপণ শেষ হয়েছে। কিছুদিনের মাঝে বঙ্গবন্ধুর মুখচ্ছবি ফুটে উঠবে ফসলের মাঠে। বগুড়ায় ১০০ বিঘা জমির উপরে শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধুর প্রতিচ্ছবিও হচ্ছে প্রথমবারের মত।

বগুড়ার শিবগঞ্জের শেরপুর উপজেলার বালেন্দা গ্রাম। ধানের চারায় বঙ্গবন্ধুর চিত্র ফুটিয়ে তোলার জন্য ধান রোপনের কাজ শেষ। এখন শুধু অপেক্ষা ধানের গাছ বড় হওয়ার।

প্রায় প্রতিদিন আকাশ থেকে ছবি নিয়ে দেখা হচ্ছে শষ্যচিত্রে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতির জন্য রোপন করা ধানের চারার অগ্রগতি। যতো বড় হবে ধানের চারা, বঙ্গবন্ধুর অবয়ব ততোইস্পস্ট হবে। ফসলের রং বদলে যাওয়ার সাথে সাথে বদলে যাবে প্রতিকৃতির রংও।

শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধু জাতীয় পরিষদ সমন্বয়ক কৃষিবিদ ফয়জুল সিদ্দিকী বলেন,’আমরা এমন একটা ফসলকে চাচ্ছিলাম যেটা জমিতে যেন অন্তত তিন থেকে চার মাস থাকে। আমরা চিন্তা করলাম যে ধান আমাদের দরকার। ধান দিয়ে যদি করতে পারি, মাঠে আমরা ১৪৫ দিন থেকে ১৫০ দিন পর্যন্ত এই চিত্রটাকে ধরে রাখতে পারবো।’

মুজিবশতবর্ষ উপলক্ষে ন্যাশনাল এগ্রিকেয়ার নামের একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান এটি বাস্তবায়ন করছে। যা পুরোটাই সমন্বয় করছে ‘শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধু জাতীয় পরিষদ’। ১০০ বিঘা জমিতে এই কাজ শেষ হয়েছে যা ‘বিশ্বের সবচেয়ে বড় ‘শস্যচিত্র’ হিসেবে গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে স্থান নিবে বলে আশাবাদী আয়োজকরা।

শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধু জাতীয় পরিষদ সদস্য সচিব কৃষিবিদ কে এস এম মোস্তাফিজুর রহমান জানান,’বঙ্গবন্ধু যিনি আমাদের জাতীর পিতা, তকে যখন আমরা সার পৃথিবীতে শষ্যচিত্রে গিনিজ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে নিয়ে যেতে চাই, দল-মত নির্বিশেষে সকলকে একত্রিত করা ছিলো একটা বড় চ্যালেঞ্জ।’

শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধু জাতীয় পরিষদ আহবায়ক কৃষিবিদ আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিম জানান,’যখন ধান আসবে তখন জাতীর পিতার মুখোচ্ছবিটা কিন্তু ভিন্নভাবে ধরা দিবে। এই মানুষের মুখোচ্ছবি একেক সময় একেক রং হবে।’

লার্জেস্ট ক্রপ ফিল্ড মোজাইক-ইমেজ কিংবা শস্যচিত্রে এটি হবে নতুন রেকর্ড। বর্তমানে রেকর্ডটি চীনের দখলে। চীন থেকে বেগুনি ধান এবং দেশীয় সবুজ ধানের চারা দিয়ে বঙ্গবন্ধুর অবয়ব দৃশ্যমান করা হবে। অনেক উপর থেকে দেখলে মাঠের মাঝে স্পষ্ট দেখা যাবে জাতির পিতার প্রতিকৃতি।

- Advertisement -
- Advertisement -

সর্বশেষ সংবাদ

করোনায় মৃত মুসলিমদের দ্বীপে দাফন ঘিরে শ্রীলঙ্কায় তুমুল বিতর্ক

করোনাভাইরাসে মৃত মুসলিমদের প্রত্যন্ত দ্বীপে দাফনে শ্রীলঙ্কার সরকারের নেওয়া পরিকল্পনার তুমুল সমালোচনা করেছেন দেশটির স্থানীয় এবং সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠীর সদস্যরা।...
- Advertisement -

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

- Advertisement -