জাতিসংঘের সামনে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত

0
50

জাতিসংঘের সামনে নির্মিত অস্থায়ী শহিদ মিনারে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করা হয়েছে। এছাড়া শহীদ দিবস পালনের ৩০ বছর পূর্তি হয়েছে। এ উপলক্ষে বাংলাদেশ ও আমেরিকার ৩০টি পতাকা দিয়ে শহীদ মিনার চত্বরটি সাজানো হয়েছে।

নিউইয়র্ক সময় দুপুর ১.০১ টায় (বাংলাদেশ সময় শনিবার দিবাগত রাত ১২টা ১ মিনিট) ৬ বছরের শিশু অনন্যা রায় প্রিয়ার শহীদ মিনারে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণের মধ্য দিয়ে নিউইয়র্কে জাতিসংঘের সামনে নির্মিত অস্থায়ী শহীদ মিনারে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানো শুরু হয়।

জাতিসংঘে বাংলাদেশ মিশন, বাংলাদেশ কনস্যুলেট, বিভিন্ন রাজনৈতিক, পেশাজীবী, কবি, সাহিত্যিক, লেখক, সাংবাদিক, সাংষ্কৃতিক ও আঞ্চলিক সংগঠনের শ্রদ্ধা জ্ঞাপনের মধ্য দিয়ে জাতিসংঘের সদর দফতরের সামনে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের কর্মসূচি পালিত হলো।

বরফে আচ্ছাদিত নিউইয়র্ক শহরের হাঁড় কাপানো ঠান্ডার মধ্যে নিউইয়র্ক সিটির বিভিন্ন এলাকা থেকে কূটনীতিক ও প্রবাসী নেতৃবৃন্দ অংশ নেন

কোভিড-১৯ এর ভয়াবহ প্রকোপের মধ্যেই মুক্তধারা ফাউন্ডেশন ও বাঙালির চেতনা মঞ্চের উদ্যোগে আয়োজিত এই কর্মসূচিতে।

জাতিসংঘে বাংলাদেশ স্থায়ী মিশনের পক্ষে মিনিস্টার ও দূতালয় প্রধান মোহাম্মদ নুরে আলম ও প্রথম সচিব (প্রেস) মো. নুরএলাহি মিনা শহীদ মিনারে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণের পর বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল, নিউইয়র্কের পক্ষে ডেপুটি কনসাল জেনারেল এস. এম নাজমুল হাসান, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা ফরাছত আলী, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও বাংলাদেশ এ্যাথলেটিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুল রকিব মন্টু, নিউইয়র্ক স্টেট আওয়ামী লীগের সেক্রেটারি শাহীন আজমল, আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি নূরুজ্জামান সরদার, যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদের পক্ষে শিতাংশ গুহ, ওবায়দুল্লাহ মামুনের নেতৃত্বে একুশের চেতনা মঞ্চ, অনুপ দাশ ড্যান্স একাডেমির পক্ষে আলপনা গুহ, সুচিত্রা সেন মেমোরিয়াল ইউএস, গৌরিপ্রসন্ন মজুমদার স্মরণ সংসদ, রাজ গৌরীপুর সংসদ, বাঙালির চেতনা মঞ্চের পক্ষে ছাখাওয়াত আলী ও আবদুর রহিম বাদশা এবং মুক্তধারা ফাউন্ডেশনের পক্ষে বিশ্বজিত সাহা ও শুভ রায় শহীদ মিনারে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করেন।

উল্লেখ্য, ১৯৯২ সালে জাতিসংঘের সামনে নির্মিত হয়েছে অস্থায়ী শহীদ মিনার। ২০১৬ সালে মুক্তধারা ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ফেব্রুয়ারি মাসব্যাপী প্রদর্শিত হয় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের ভাস্কর্য। গত ২৯ বছর ধরে সংগঠন দুটি মহান শহীদ দিবস পালন করে আসছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here