শুরু হলো ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব ২০২১

অবশ্যই পড়ুন

ফিঞ্চের নেতৃত্বেই আস্থা রাখছে অস্ট্রেলিয়া

সময়টা ব্যাট হাতে মোটেও ভাল যাচ্ছে না অ্যারণ ফিঞ্চের। যে কারণে তার অধিনায়কত্ব নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। তবে এ সময়ে...

যুক্তরাষ্ট্রের আলোচনার প্রস্তাব ফিরিয়ে দিল ইরান

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে বৈঠকে বসার প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছে ইরান। ইউরোপীয় ইউনিয়নকে নিয়ে ইরানের সঙ্গে বৈঠক করতে চেয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র। পরমাণু চুক্তি...

লকডাউনের মাত্রা শিথিল করলো দক্ষিণ আফ্রিকা

করোনাভাইরাস মহামারি ঠেকাতে আরোপিত লকডাউনের মাত্রা শিথিল করেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। দেশটিতে লকডাউনের কড়াকড়ি তৃতীয় স্তর থেকে প্রথম স্তর নামিয়ে...

সামরিক অভ্যুত্থান মানবতাবিরোধী অপরাধ : প্রেসিডেন্ট এরদোগান

সামরিক অভ্যুত্থানকে মানবতাবিরোধী অপরাধ হিসেবে আখ্যা দিলেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগান। রোববার তুরস্কের ‘উত্তরাধুনিক ক্যু’ অভ্যুত্থানের ২৪ তম বার্ষিকীতে...

আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞার মুখে মিয়ানমার, জান্তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার হুমকি

মিয়ানমারে চলমান সহিংসতার ঘটনায় দেশটির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের কথা বিবেচনা করা হচ্ছে বলে সতর্ক করেছে জাতিসংঘ ও ইউরোপীয়ান ইউনিয়ন।...

বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ২২৫টি বিভিন্ন ধারার চলচ্চিত্র নিয়ে শুরু হলো উনবিংশ ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব-২০২১। এবারের এ উৎসবটি উৎসর্গ করা হয়েছে মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে। ‘নান্দনিক চলচ্চিত্র, মননশীল দর্শক, আলোকিত সমাজ’ স্লোাগানে ১৯৯২ সালের ধারাবাহিকতায় এই উৎসবের আয়োজন করেছে-রেইনবো চলচ্চিত্র সংসদ। ৯ দিন ব্যাপী দেশের বৃহত্তম এ চলচ্চিত্র উৎসব শেষ হবে আগামী ২৪ জানুয়ারি।

শনিবার (১৬ জানুয়ারি) রাজধানীর শাহবাগে অবস্থিত জাতীয় জাদুঘরের মূল মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী আয়োজনে নয়দিনের এ উৎসবের উদ্বোধন করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন। মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরে ট্রাস্টি মফিদুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ উদ্বোধনী আনুষ্ঠানিকতায় বিশেষ অতিথি ছিলেন ঢাকায় নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম কে দোরাইস্বমী ও উৎসব কমিটির নির্বাহী সদস্য ম. হামিদ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন উৎসব পরিচালক আহমেদ মুজতবা জামাল।

উৎসবের উদ্বোধন করে ড. এ কে আবদুল মোমেন বলেন, সামাজিক-অর্থনৈতিক এবং সাংস্কৃতিক ভেদাভেদ ভুলে সকল সভ্যতার মানুষকে একত্রিত করতে পারে চলচ্চিত্র, তাই চলচ্চিত্র উৎসব সমাজের উতিবাচক ভূমিকা তৈরির জন্য গুরত্বপূর্ণ। এ ধরণের উৎসবের মধ্য দিয়ে সৃজনশীল মানুষের মিলন ঘটে। এর মধ্য দিয়ে এক দেশের সংস্কৃতি, সমাজ ও মানুষের সম্পর্কে ধারণা পাওয়া যায়। আমি আশা করি, এ উৎসবের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের চলচ্চিত্র এগিয়ে যাবে।

তিনি আরও বলেন, ওটিটি প্ল্যাটফর্মগুলো নিজেদের চলচ্চিত্র আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে পরিবেশনার সুযোগ করে দিয়েছে, তাই দেশের নির্মাতাদের ওটিটি প্ল্যাটফর্মের উপযুক্ত চলচ্চিত্র নির্মাণের আহ্বান জানান তিনি।

মুজিব শতবর্ষের ঊনবিংশতম ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব-২০২১, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি উৎসর্গ করায় এসময় আয়োজকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন আবদুল মোমেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রশংসা করে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দক্ষহাতে করোনা নিয়ন্ত্রণ করে সাধারণ মানুষের বিনোদনের জন্য দেশের সিনেমাহলগুলো খুলে দিয়েছেন।

বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ ও বাংলাদেশের স্বাধীনতার সূবর্ণজয়ন্তীতে ভারত ও বাংলাদেশ একত্রে অনেকগুলো কাজ করছে। এর মধ্যে রয়েছে দুই দেশের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিতব্য বঙ্গবন্ধুর বায়োপিক ‘বঙ্গবন্ধু’। এছাড়াও ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজে ভারতের সশস্ত্রবাহিনী অংশ নেবে।

তিনি আরও বলেন, আজ (গতকাল) ঢাকায় আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধন হয়েছে। একইসময়ে ভারতের গোয়ায়ও আরেকটি আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব শুরু হচ্ছে। সেখাানে বাংলাদেশ হচ্ছে ফোকাস কান্ট্রি। আমি মনে করি, সৃজনশীল এবং চলচ্চিত্রপ্রেমী মানুষদের জন্য এটি একটি দারুণ উৎসব।

উদ্বোধন পর্ব শেষে প্রদর্শিত হয় এবারের উৎসবের উদ্বোধনী চলচ্চিত্র ফ্রান্সের ‘স্প্রিং ব্লোসম’। একজন টিনএইজ তরুণীর সঙ্গে একজন পৌড় বা বয়স্ক মানুষের জাগতিক সম্পর্কের টানাপোড়ন নিয়ে নির্মিত হয়েছে এই চলচ্চিত্রটি। এটি পরিচালনা করেছেন-সুজান্না লিনডন।

উনিশতম বারের অনুষ্ঠিত এবারের এ উৎসবে বাংলাদেশসহ ৭৩টি দেশের ২২৫টি চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে। এর মধ্যে পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র রয়েছে ১০৫টি, স্বল্পদৈর্ঘ্য ও স্বাধীন চলচ্চিত্রের সংখ্যা ১২০টি। বাংলাদেশের চলচ্চিত্র থাকছে ৪১টি। যার মধ্যে ৩৩টি স্বল্পদৈর্ঘ্য ও স্বাধীন এবং ৮টি পূর্ণদৈর্ঘ্য।

জাতীয় জাদুঘরের প্রধান মিলনায়তন ও কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তন, কেন্দ্রীয় গণগ্রন্থাগারের শওকত ওসমান স্মৃতি মিলনায়তন, শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা ও সঙ্গীত ও নৃত্যকলা কেন্দ্র মিলনায়তন, শিল্পকলার নন্দনমঞ্চ, বসুন্ধরা সিটির স্টার সিনেপ্লেক্স এবং সীমান্ত স্কয়ার সিনেপ্লেক্সসহ আট মিলনায়তনে একযোগে প্রদর্শিত হবে উৎসবের চলচ্চিত্রগুলো। এছাড়া লাগভেলকি অনলাইন প্লাটফর্মেও উৎসব চলাকালীন নির্বাচিত চলচ্চিত্রগুলো দেখা যাবে। এশিয়ান ফিল্ম প্রতিযোগিতা বিভাগ, রেট্রোস্পেকটিভ বিভাগ, বাংলাদেশ প্যানারোমা, সিনেমা অব দ্য ওয়ার্ল্ড, চিল্ড্রেন ফিল্মস্, স্পিরিচুয়াল ফিল্মস, ‘লিজেন্ডারি লিডারস হু চেঞ্জ দি ওয়ার্ল্ড’, ট্রিবিউট’শর্ট অ্যান্ড ইন্ডিপেনডেন্ট ফিল্ম এবং উইমেন্স ফিল্ম মেকার বিভাগে প্রদর্শিত হবে উৎসবের ছবিগুলো। উৎসবে অংশগ্রহণকারী দেশগুলো হলো- আফগানিস্তান, আলবেনিয়া, আর্মেনিয়া, আর্জেন্টিনা, অস্ট্রেলিয়া, আজারবাইজান, বাহরাইন, বেলজিয়াম, ভূটান, ব্রাজিল, কানাডা, চীন, কিউবা, সাইপ্রাস, ডেনমার্ক, ফিনল্যান্ড, ফ্রান্স, প্যালেস্টাইন, জার্মানি, গ্রিস, হংকং, হাঙ্গেরি, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, ইরান, ইতালি, জাপান, কাজাকস্তান, কসোভো, কিরগিস্তান, লাটভিয়া, লেবানন, লুক্সেমবার্গ, মালয়েশিয়া, মেক্সিয়া, নেপাল, নরওয়ে, পাকিস্তান, ফিলিপাইন, পোল্যান্ড, পর্তুগাল, কাতার, রাশিয়া, স্টোভেনিয়া, স্পেন, দক্ষিণ কোরিয়া, সুইডেন, সুইজারল্যান্ড, সিরিয়া, তাইওয়ান, তাজিকিস্তান, থাইল্যান্ড, তুরস্ক, আরব আমিরাত, যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, ভেনিজুয়েলা, সাইপ্রাস এবং বাংলাদেশ।

- Advertisement -
- Advertisement -

সর্বশেষ সংবাদ

ফিঞ্চের নেতৃত্বেই আস্থা রাখছে অস্ট্রেলিয়া

সময়টা ব্যাট হাতে মোটেও ভাল যাচ্ছে না অ্যারণ ফিঞ্চের। যে কারণে তার অধিনায়কত্ব নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। তবে এ সময়ে...
- Advertisement -

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

- Advertisement -