‘ভ্যাকসিনের দাম বেশি হলে অন্য দেশে যাওয়ার সুযোগ রয়েছে’

অবশ্যই পড়ুন

টি-টেনে নেতৃত্ব পেলেন নাসির

ফিটনেসহীনতায় বাংলাদেশের ঘরোয়া দু’টি টুর্নামেন্টে জায়গা হয়নি নাসির হোসেনের। তবে টি-টেন লীগের চতুর্থ আসরে দল পেয়েছেন তিনি। পুনে ডেভিলসের...

এবারের একুশে বইমেলা চলবে ১৮ মার্চ থেকে ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত

আগামী ১৮ মার্চ থেকে শুরু হতে যাওয়া এবারের অমর একুশে বই মেলা চলবে ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত। অর্থাৎ এবারের বই...

লিপস্টিক-নেলপলিশ লাগাতে পারবেন মার্কিন নারী সেনারা

মার্কিন নারী সেনারা এখন থেকে আগের চেয়ে বেশি সাজসজ্জা করতে পারবেন। পেন্টাগন সম্প্রতি এ বিষয়ে নিয়মকানুন হালনাগাদ করেছে। সে...

অধিনায়ক হিসেবে তিন ফরম্যাটেই কামিন্সকে চান ক্লার্ক

ঘরের মাঠে সর্বশেষ বোর্ডার-গাভাস্কার ট্রফিতে  ভারতের কাছে হারের পর বর্তমান টেস্ট অধিনায়ক টিম পেইনের অধিনায়কত্ব এবং উইকেটকিপিং নিয়ে সমালোচনার...

প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে দাঁড়াতে পারেন মাইক পম্পেও

২০২৪ সালে যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে দাঁড়াতে পারেন সাবেক মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। এ জন্য সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে...

কোনো দেশ যদি ভ্যাকসিনের দাম বেশি বলে তবে আমাদের অন্য দেশে যাওয়ার সুযোগ রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। তিনি বলেছেন, “এক দেশ ভ্যাকসিন তৈরি করবে না, অনেক দেশ তৈরি করবে। এক দেশ থেকে যদি বেশি দাম বলে আমরা অবশ্যই অন্য দেশে যাওয়ার চেষ্টা করব, সেই সুযোগ আমাদের রয়েছে।”

বুধবার (১৩ জানুয়ারি) অর্থনৈতিক ও সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির ভার্চুয়াল বৈঠক শেষে ‘ভারত থেকে বাড়তি দামে ভ্যাকসিন কেনার বিষয়টি নিয়ে’ সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন তিনি।

ভারতের তুলনায় ৪৭ শতাংশ বেশি দামে ভ্যাকসিন কেনা হচ্ছে, এর ফলে বাজেটে কী প্রভাব পড়বে- এমন প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, “আমি এটা জানিনা, দাম বেশি হয়েছে কি-না। ইন্ডিয়া যদি তৈরি করে তাহলে তাদের কস্ট অব প্রোডাকশন তো কম হবেই। তারা যখন বিক্রি করবে ডেফিনেটলি সেলস প্রাইসটা তাদের খরচ, প্রফিট এই দুইটাকে একত্র করে তারা এই কাজটি করবে। তাদের যে খরচ হবে সেই দামে আমরা পাবো, তাদের দেশে যদি তৈরি করা হয় এটা প্রত্যাশা করা ঠিক হবে না। তবে আমরা দেখব যে আন্তর্জাতিক বাজারে কতো ভ্যাকসিনের দাম এবং আমরা কতো দামে পাচ্ছি সেটা নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা করব।”

অর্থমন্ত্রী বলেন, “আমাদের প্রধানমন্ত্রীর প্রত্যাশা হলো, সবার এমনকি যারা খরচ বেয়ার (বহন) করতে পারবেন না তাদেরও খরচ তিনি বেয়ার করবেন। আপনারা জানেন এটা একদিনে হবে না। দেশের ১৭ কোটি মানুষকে একদিনে এটি দেয়া যাবে না। সেজন্য ডেফিনেটলি কিছু স্টেপ থাকবে। প্রথম স্টেপে কারা পাবেন, দ্বিতীয় স্টেপে কারা পাবেন, তৃতীয় স্টেপে কারা পাবেন, এভাবে শনাক্ত করে ভ্যাকসিন দিতে হবে। আমরা প্রত্যাশা করি, দেশের ১৭ কোটি মানুষকে ভ্যাকসিনেশনের আওতায় আনতে পারব।”

- Advertisement -
- Advertisement -

সর্বশেষ সংবাদ

টি-টেনে নেতৃত্ব পেলেন নাসির

ফিটনেসহীনতায় বাংলাদেশের ঘরোয়া দু’টি টুর্নামেন্টে জায়গা হয়নি নাসির হোসেনের। তবে টি-টেন লীগের চতুর্থ আসরে দল পেয়েছেন তিনি। পুনে ডেভিলসের...
- Advertisement -

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

- Advertisement -