নতুন বছরে করোনার বিরুদ্ধে হার্ড ইমিউনিটি তৈরি হবে না : বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

অবশ্যই পড়ুন

বাংলাদেশের কাছে করোনার টিকা হস্তান্তর করলো ভারত

ভারতের উপহার দেওয়া ২০ লাখ ডোজ করোনার টিকা বাংলাদেশের কাছে হস্তান্তর করেছে ভারত। বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) দুপুর দেড়টায় রাষ্ট্রীয় অতিথি...

ক্ষমতা হাতে পেয়েই যাকে প্রথম বরখাস্ত করলেন বাইডেন

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে এরই মধ্যে দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন জো বাইডেন। বুধবার (২০ জানুয়ারি) শপথ বাক্য পাঠ করার...

লিবিয়া উপকূলে নৌকাডুবিতে ৪৩ অভিবাসীর মৃত্যু

উত্তর আফ্রিকার দেশ লিবিয়ার উপকূলে নৌকাডুবে অত্যন্ত ৪৩ জন অভিবাসন প্রত্যাশীর মৃত্যু হয়েছে। বুধবার (২০ জানুয়ারি) জাতিসংঘের অভিবাসন বিষয়ক...

আতঙ্কিত হবেন না, ভ্যাকসিন পাবেন : ডব্লিওএইচও

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডাব্লিওএইচও) বলেছে, ভ্যাকসিন পাওয়া নিয়ে কেউ আতঙ্কিত হবেন না। যারা ভ্যাকসিন পেতে চাচ্ছেন তাদের প্রত্যেকেই পাবেন। সংস্থাটির...

বান্দরবানের থানচিতে জিপ উল্টে ৩ শ্রমিক নিহত

বান্দরবানের থানচি উপজেলায় জিপ গাড়ি উল্টে তিন শ্রমিক নিহত হয়েছেন। এছাড়াও চারজন আহত হয়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার...

নতুন বছরে কোভিড-১৯ এর বিরুদ্ধে হার্ড ইমিউনিটি তৈরি হবে না বলে সতর্ক করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বিজ্ঞানীরা বলেছেন, বিপুল জনগোষ্ঠীকে টিকা দেওয়া সম্ভব হলেও এবছরেও কোভিডের বিরুদ্ধে হার্ড ইমিউনিটি তৈরি হবে না। বিশ্ব জুড়ে কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। ইউরোপে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে সবচেয়ে দ্রুত হারে। বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। -টাইমস অব ইন্ডিয়া

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা-এর প্রধান বিজ্ঞানী সৌম্যা স্বামীনাথন সোমবার বলেন, করোনা মহামারী প্রতিরোধে এখনও সময় লাগবে। করোনায় এ পর্যন্ত বিশ্ব জুড়ে আক্রান্ত হয়েছে ৯ কোটি মানুষ। মারা গিয়েছেন ২০ লাখ।

সৌম্যা স্বামীনাথন বলেন, এ বছরেও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা, ঘন ঘন হাত ধোঁয়া এবং মাস্ক পরার পরামর্শ দেন তিনি। ভারতে টিকা দেওয়া শুরু হবে ১৬ জানুয়ারি থেকে। প্রথম ৩০ কোটি মানুষকে বিনামূল্যে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। ডাক্তার, স্বাস্থ্যকর্মী তথা কোভিড ফ্রন্টলাইন ওয়ার্কারদের (পুলিশ, পৌরসভার কর্মীরা) টিকা দেওয়ার পর প্রবীণ ও কোমর্বিডিটির রোগীরা টিকার অগ্রাধিকার পাবেন। ৫০ বছরের কম যাদের শরীরে ক্রনিক রোগ রয়েছে তাদেরও রাখা হয়েছে টিকা অগ্রাধিকারের তালিকায়। চার ক্যাটাগরিতে হবে টিকাদান কর্মসূচি। ৩০ কোটি মানুষকে ভ্যাকসিনের দুটি করে ডোজ দিতে মোট ৬০ কোটি ডোজ দরকার পড়বে। এই বিপুল পরিমাণ ডোজ সেরাম ইনস্টিটিউট ও ভারত বায়োটেক তৈরি করবে। দুই সংস্থাই জানিয়েছে, একজোট হয়ে তারা টিকা উৎপাদন ও বিতরণের কাজ করবে।

- Advertisement -
- Advertisement -

সর্বশেষ সংবাদ

বাংলাদেশের কাছে করোনার টিকা হস্তান্তর করলো ভারত

ভারতের উপহার দেওয়া ২০ লাখ ডোজ করোনার টিকা বাংলাদেশের কাছে হস্তান্তর করেছে ভারত। বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) দুপুর দেড়টায় রাষ্ট্রীয় অতিথি...
- Advertisement -

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

- Advertisement -