36 C
Dhaka
রবিবার, জুলাই ১২, ২০২০

৯৪-এ করোনাকে জয় করে ফিরলেন লালমোহন

অবশ্যই পরুন

করোনায় মা’রা যাওয়া দুদক পরিচালকের স্বজন বলে দিলেন করোনা থেকে সুস্থ হওয়ার টোটকা

করোনা ভাইরাস বাংলাদেশে হানা দিয়েছে প্রায় ১ মাসের বেশি হয়ে গেল। আর এই এক মাসের মধ্যে করোনা বেশ ছড়িয়েছে...

রাশিয়ায় বাড়ছে করোনা, সামরিক বাজেট ব্যবহারের নির্দেশ পুতিনের

বিশ্বে করনোভাইরাসের মারাত্মক হানার মধ্যেও রাশিয়ায় শুরুতে খুব বেশি প্রভাব দেখা দেয়নি। তবে সম্প্রতি দেশটিতে ভয়ংকর আকার নিতে শুরু...

সিঙ্গাপুরে একদিনে সর্বোচ্চ আক্রান্তের রেকর্ড

বুধবার একদিনে সিঙ্গাপুরে ৪৪৭ জনের দেহে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত করা হয়েছে। যা দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার এই দ্বীপরাষ্ট্রে একদিনে সর্বোচ্চসংখ্যক করোনা...

ফ্যামিলি বাইকার হয়ে উঠার পিছনের গল্প

আজকে আমি পরিচয় করিয়ে দিবো আমার ফ্যামিলি বাইকার হয়ে উঠার পিছনে অন্যতম সাহায্যকারী আমার বৌ Sharmin Upoma কে। সে শুধু...

রোজ নাতির কাছ থেকে জানতে চাইতাম করোনা নিয়ে। আমেরিকায় কত জনের হল, দেশে ক’জন আক্রান্ত, বাংলায় কত, কলকাতার কী অবস্থা? ভাবিনি আমারও করোনা হবে। এখন তো দেখছি, দিব্যি সেরেও গেল।

সেই ৯ জুন থেকে ভর্তি ছিলাম কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ। বাড়ি ফিরলাম বৃহস্পতিবার দুপুরে। বিকেলে এক বার মুখ ফসকে বলে ফেলেছিলাম, কাল বাজারে যাব। নাতি আনন্দ কিছুটা ধমকই দিল। বলল, ডাক্তারবাবু বলেছেন, অন্তত ১৪ দিন বাড়িতে কোয়ারান্টিন থাকতে। মেডিক্যালের ডাক্তারবাবুরা খুব ভালো। ওঁদের কথা শুনব না, তা হয়!

আসলে বাজার আমার খুব প্রিয় জায়গা। মানিকতলা বাজারে ফলের ব্যবসা ছিল এক সময়ে। তাই এই বয়সেও রোজ বাজার না-গেলে ভাত হজম হয় না। এই জুনের গোড়াতেও তার ব্যতিক্রম হয়নি। কিন্তু বাজারে যাওয়াটাই বোধহয় কাল হল।

মেয়ে সোনামণি আর আমার প্রায় এক সঙ্গেই জ্বর এল ২-৩ তারিখ নাগাদ। মেয়ে আগে ভর্তি হল। আমি দু’দিন পরে। প্রথমে হাসপাতালে যেতে চাইনি। নাতি যখন বলল, অসুখটা করোনাও হতে পারে, তখন আর দেরি করিনি।

৯ জুন মেডিক্যালে পৌঁছতেই ভর্তি নিয়ে নিল। দেখলাম, সুন্দর সব ব্যবস্থা। মেয়ে আমার একদিন আগেই বাগবাজারের বেসরকারি হাসপাতাল থেকে করোনা পজিটিভ হয়ে মেডিক্যালে ভর্তি হয়েছিল। আমার রিপোর্ট পজিটিভ এল ১৩ তারিখ। অন্য একটা বিল্ডিংয়ে নিয়ে গেল।

ওখানকার ডাক্তার-নার্সরা খুব ভালো। এত সুন্দর করে কথা বলেন আর যত্ন করে চিকিৎসা করেন। প্রথমেই করোনা নিয়ে ভয়টা কেটে যায়। সবাই পিপিই পরে থাকেন বলে চিনতে অসুবিধা হয়, এই যা। মেয়ে ছুটি পেল তিন দিন আগে। আমায় ডাক্তারবাবু পরশুই বলে দিয়েছিলেন, আমিও ভালো আছি। তাই দু’-তিন দিনের মধ্যে ছুটি দিয়ে দেবেন। কাল রাতেই বলে দিয়েছিলেন, আজ বাড়ি ফিরব। কিন্তু আজ যখন বাড়ি ফেরার পালা, তখন যে ওঁরা এত সুন্দর ভাবে বিদায় জানাবেন, ভাবতে পারিনি। নাতনির বয়সী নার্সরা আমায় হুইলচেয়ারে করে বাইরে নিয়ে এল, ফুল দিল, মালা পরাল। সুপার সাহেবও ছিলেন। আর ছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী নির্মল মাজি। আমার হাতে ফুল আর হেলথ ড্রিঙ্ক দিলেন তিনি। মেডিক্যাল থেকে বাড়ি ফেরার সময়ে তাই একটু মন খারাপও লাগছিল। তবে বাড়ি ফেরার আনন্দটা যে ঢের বেশি।

সর্বশেষ সংবাদ

অবশেষে মাস্ক পরলেন ট্রাম্প

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসের প্রথম রোগী সনাক্ত হয় জানুয়ারি মাসে। মাসের হিসেবে ৭ মাসেরও অধিক সময় ধরে করোনাভাইরাস...

অর্থের লোভে বিয়ে করিনি, স্বামীর থেকেও বেশি আয় করি: মোনালি

কাউকে না জানিয়ে বিয়ে করেছিলেন মোনালি ঠাকুর। তার স্বামী মাইক পেশায় ব্যবসায়ী, থাকেন সুইজারল্যান্ডে। হোটেলের ব্যবসা তার। এই খবর সামনে আসতেই মোনালিকে...

ঈদের আগে খুলছে না কক্সবাজারের হোটেল-পর্যটন স্পট

কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত, পর্যটন স্পট এবং হোটেলগুলো ঈদুল আযহার আগে খোলা হবে না। কক্সবাজার জেলায় কোভিড-১৯ নিয়ন্ত্রণে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। স্থানীয় সরকার...

করোনার টিকা নিয়ে বাণিজ্য না করার অনুরোধ বিল গেটসের

চীনের হুবেই প্রদেশের উহানে গত বছরের ৩১ ডিসেম্বরে করোনভাইরাসের উপস্থিতি ধরা পড়ে। এরপর থেকে বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়ে করোনাভাইরাস। প্রতিদিন দীর্ঘ হচ্ছে লাশের...

বাংলাদেশে ভারতের নতুন হাইকমিশনার হচ্ছেন বিক্রম

রীভা গাঙ্গুলি দাশকে পদোন্নতি দিয়ে বাংলাদেশে নতুন হাইকমিশনার নিয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত। শনিবার হিন্দুস্তান টাইমস জানিয়েছে, রীভার উত্তরসূরি হিসেবে বিক্রম দোড়াইস্বামী দ্রুত ঢাকায়...

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ